বসত বাড়ির ভিটা উচুকরণ

বাংলাদেশের নিম্নাঞ্চলের নদীবিধৌত ছোট দ্বীপগুলো (চরসমূহ) প্রাকৃতিকভাবেই প্রতিবছর বর্ষার সময় বন্যার ঝুঁকিতে থাকে যা অনেক সময়েই সম্পূর্ণ চর নদীগর্ভে বিলীন করে এবং চরে বসবাসরত জনগোষ্ঠীকে তাদের বাড়ি ঘর ত্যাগ করতে বাধ্য করে। সিএলপি এর সহায়তা প্যাকেজের আওতায় অংশগ্রহণকারী পরিবারগুলোর বসতভিটা বন্যায় প্লাবিত সর্বশেষ উচ্চতার উপরে বেঁধে দেয়; যাতে তারা বন্যার কবল থেকে নিজেদের ও নিজেদের সম্পদকে (যেমন: গবাদি প্রাণি) রক্ষা করতে পারে। এই ভিটাগুলো খরা মৌসুমে নির্মাণ করা হয় যখন ঐসব এলাকায় কাজের সুযোগ কম থাকে; এর ফলে অনেকের কাজের সুযোগ সৃষ্টি হয়। সিএলপি কিভাবে বন্যার কবল থেকে ঘর-বাড়ি রক্ষা করে তা আরও বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

বন্যার পানির উচ্চতা পরিমাপক খুঁটি

সিএলপি এর কর্ম এলাকার সকল গ্রামগুলোতে বন্যার পানির উচ্চতা পরিমাপের জন্য একটি পাকা খুঁটি স্থাপন করে, যা বসতভিটা স্থাপন করার নিরাপদ উচ্চতা পরিমাপক হিসাবে কাজ করে। এই খুঁটিগুলোতে বন্যায় প্লাবিত সর্বোচ্চ উচ্চতাকে নির্দেশ করে একটি এবং এর থেকে দুই ফুট উঁচুতে আরও একটি মোট দুটি চিহ্ন দেয়া থাকে। এটি চরের বৃহত্তর জনগোষ্ঠীকে বন্যার পূর্ব প্রস্তুতি নিতে এবং সঠিক উচ্চতায় বসত ভিটা উঁচুকরণ নিশ্চিত করতে সাহায্য করে।

টিউবওয়েল

সিএলপি এর কর্ম এলাকার গ্রামগুলোতে সুরক্ষিত টিউবওয়েল স্থাপনের জন্য দলীয় ভিত্তিতে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ ভর্তুকি হিসেবে দিয়ে থাকে। এই টিউবওয়েলগুলোর গোড়া পাকা করে তৈরী করা হয় যা টিউবওয়েলের গোড়া দিয়ে ভুগর্ভস্থ পানি দূষণ প্রতিরোধ করে। এছাড়াও সামাজিক উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে চরের পরিবারগুলোকে সঠিকভাবে হাত ধোয়া ও পয়ঃনিস্কাশন অভ্যাস অনুশীলন বিষয়ে অবগত করা হয়। সিএলপি কিভাবে পানি, পয়ঃনিস্কাশন এবং স্বাস্থ্যবিধির উন্নতি সাধন করে তা আরও বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।

স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানা

প্রকল্পের কর্ম এলাকার গ্রামগুলোতে সকল পরিবারকে স্বল্প মূল্যের স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানা তৈরির জন্য অনুদান দেয়া হয়। পায়খানা নির্মাণ ছাড়াও, তাদের আচরণগত পরিবর্তনের জন্য ক্যাম্পেইন করা হয় যাতে তারা উন্মুক্ত স্থানে পায়খানা করা বন্ধ করে এবং স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানা ব্যবহারে অনুপ্রাণিত হয়। কিভাবে তাদের সামাজিক আচার-আচরণে প্রভাব বিস্তার করা হয় তা আরও বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।

3,626 total views, 7 views today